মীমাংসা করার জন্য রাস্তায় বেরিয়ে গাড়ির ধাক্কায় মৃত্যু,ঘটনায় চাঞ্চল্য নকশালবাড়িতে।

নকশালবাড়ি : মীমাংসা করার জন্য রাস্তায় বেরিয়ে গাড়ির ধাক্কায় মৃত্যু। ঘটনায় চাঞ্চল্য নকশালবাড়িতে। জানা গিয়েছে বোনের পারিবারিক সমস্যা মেটাতে গিয়ে জামাইবাবুর গাড়ির ধাক্কায় মৃত্যু হল শালকের। 

ঘটনায় নকশালবাড়ি থানায় খুনের অভিযোগ করে দোষীর শাস্তির দাবি জানান মৃতের পরিবারের সদস্যরা। ৩বছর আগে মৃত ব্যক্তির বোন সরস্বতীর সঙ্গে বিয়ে হয় গোবিন্দ বর্মনের। 

বিয়ের পর দিন থেকেই সরস্বতীর সঙ্গে অত্যাচার চালায় তার স্বামী। শ্বশুরবাড়ি থেকে বাপের বাড়িতে থাকার পর গতকাল রাতে মীমাংসা করার নামে শ্বশুরবাড়ির সদস্যদের রাস্তায় ডাকে গোবিন্দ। 

ঘটনায় চার চাকার গাড়ির বসে তিনি তার শ্যালককে ধাক্কা দেয়। ঘটনায় মৃত্যু হয় শালক বিপুল রায়ের। ঘটনার পর থেকে পলাতক গোবিন্দ বর্মন। পুরো ঘটনায় নকশালবাড়ি থানায় অভিযোগ দায়ের করে দোষীর শাস্তির দাবি জানান পরিবারের সদস্যরা। 

এদিন মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে পাঠানো হয়। মৃতের স্ত্রী সহ দুই সন্তান রয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

Post a Comment

और नया पुराने